হলের ছাদ থেকে পড়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রের মৃত্যু

হলের ছাদ থেকে পড়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রের মৃত্যু

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ রফিক-জব্বার হলের ছাদ থেকে পড়ে অমিত কুমার বিশ্বাস নামের এক ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। অমিত কুমার বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের (৪৫তম আবর্তন) শিক্ষার্থী ও শহীদ রফিক–জব্বার হলের আবাসিক ছাত্র। তাঁর বাড়ি খুলনা শহরে।
আজ মঙ্গলবার বিকেল সোয়া পাঁচটায় সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান প্রথম আলোকে অমিতের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক অমিতের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তাঁর মৃত্যুর সনদ তাঁদের হাতে এসে পৌঁছেছে।

ফিরোজ-উল-হাসান আরও বলেন, অমিতের পরিবারের সঙ্গে তাঁরা যোগাযোগ করেছেন। তাঁর মা–বাবা রওনা দিয়েছেন। তাঁরা এসে আরিচা ঘাটে থাকবেন। সেখান থেকে অমিতের লাশ নিয়ে তাঁর বাড়ি খুলনায় যাওয়া হবে। অমিতের লাশ সৎকার হওয়া পর্যন্ত প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহায়তা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন করবে বলে তিনি জানান।

হলের প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, আজ দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় দুপুরের খাবার খান অমিত। এরপর বন্ধুদের সঙ্গে হলে ফেরেন। বেলা আড়াইটার দিকে বৃষ্টিতে ভেজার জন্য হলের ছাদে যান অমিত। এ সময় পা পিছলে ছাদ থেকে পড়ে যান তিনি। পাঁচতলা থেকে পড়ার শব্দ শুনে কয়েকজন শিক্ষার্থী সেখানে যান। তাঁরা বমি করা অবস্থায় অমিতকে পড়ে থাকতে দেখেন। পরে অমিতকে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে নেওয়া হয়। সেখান থেকে তাঁকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে নেওয়ার পর অমিতের হৃদ্‌যন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে যায়। পরে তাঁকে আইসিইউতে নেওয়া হলে সেখানেই মারা যান তিনি।